,
সংবাদ শিরোনাম :

সেনাবাহিনীকে জনগণের পক্ষে ও প্রশাসনকে নির্ভয়ে কাজ করার আহবান করেছেন তারেক রহমান

লন্ডন প্রতিনিধি :: বিএনপি ক্ষমতায় গেলে অন্যায় ভাবে কারো চাকুরী যাবেনা, যেকোন সরকারের আমলের চাকুরী হোক। তিনি বলেন বিএনপি কোটা সংস্কারের আন্দোলনে নির্যাতিত মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য নির্বাচন করছে। তাদের ন্যায্য দাবীর প্রতিফলন ঘটাতে চাই। নতুন প্রজন্মের পাশে থাকতে অঙ্গীকার করছি।

একজন সাবেক সেনাপ্রধানের সন্তান হিসাবে আপনাদের কাছে আহবান আপনারা এই লুটেরা সরকারের অপরাধের ভাগ নিবেন না। তরুন প্রজন্মের যারা নিরাপদ সড়কের দাবী করেছিলে তোমাদের কাছে আমার দাবী তোমরা নিরাপদ সড়কের পাশাপাশি নিরাপদ বাংলাদেশ গড়ে দাও। সারা বাংলাদেশ তোমাদের কাছে সাহায্য চায়।

জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে লন্ডনে যুক্তরাজ্য বিএনপি আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই আহবান জানান।

যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালেকের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কয়ছর এম আহমদ এর পরিচালনায় বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশির উপস্থিতিতে মঙ্গলবার পূর্ব লন্ডনের রয়াল রিজেন্সি হলে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বিএনপির যুক্তরাজ্য শাখা ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

বাংলাদেশের দেশপ্রেমিক সেনাবাহিনীকে জনগণের পক্ষে ও প্রশাসনকে নির্ভয়ে কাজ করার আহবান জানিয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

সেনাবাহিনীর প্রতি আহবান জানিয়ে তারেক রহমান আরো বলেন, “আপনারা দেশপ্রেমিক সেনাবাহিনী, আপনাদের প্রতি জনগণের সম্মান রয়েছে। সেনাবাহিনীর প্রধানের একজন সন্তান হিসেবে আমি আপনাদের আহবান জানাবো এই অবৈধ সরকারের স্বার্থসিদ্ধির জন্যে আপনারা কাজ করবেননা। নির্বাচনে ভোট ডাকাতির যে উদ্যেগ সরকার গ্রহণ করছে তাতে আপনারা সামিল হবেননা। ইভিএম ব্যবহারের মাধ্যমে মানুষের ভোটাধিকার হরণের যে নীল নকশা সরকার প্রণয়ন করছে তাতে আপনারা জড়াবেননা। গণতন্ত্র প্রিয় মানুষের পক্ষে থাকুন। জনগণের ভালোবাসায় সিক্ত হোন।”

বেসামরিক প্রশাসনের উদ্দেশ্যে বিএনপির এই শীর্ষ নেতা বলেন, “সরকার পরিকল্পিতভাবে একটি অপপ্রচার চালাচ্ছে যে, বিএনপি ক্ষমতায় আসলে বিগত দশ বছরে চাকরি পাওয়া কারোরিই চাকরি থাকবেনা-এটি মিথ্যা প্রচারণা। কারো কোনো ভয় নেই, আপনারা নির্ভয়ে, নিরপেক্ষভাবে দায়িত্ব পালন করুন, বিএনপিসহ জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট আপনাদের পাশে থাকবে।”

তারেক রহমান বলেন, “আমরা জানি অবৈধ সরকারের হুকুম তামিল করতে গিয়ে অনেক অনৈতিক কাজ কাউকে কাউকে করতে হয়েছে। যার জন্য আপনারা প্রস্তুত ছিলেননা। এবং এর দায়ভারও আপনাদের নয়।”

ছাত্র, যুবকসহ সকলের উদ্দেশ্য বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বলেন, “আসন্ন নির্বাচন নিছক একটি নির্বাচন নয়। এটি একটি আন্দোলন। এ আন্দোলন গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের, মানুষের মৌলিক, মানবিক অধিকার পুনঃপ্রতিষ্ঠার, গুম-খুনের জবাব, বিডিআর বিদ্রোহের নামে ৫৭ জন সেনা অফিসার ও সাগর-রুনিসহ অসংখ্য হত্যার ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা, লুটপাট-দুর্নীতি, আর লক্ষ-লক্ষ কোটি টাকা বিদেশে পাচারের জবাব, নিরাপদ সড়ক শুধু নয় নিরাপদ বাংলাদেশ গড়ার বৃহত্তর আন্দোলন।”

আগামী নির্বাচনকে মুক্তিযুদ্ধের সঙ্গে তোলনা করে মজুলম এই জননেতা বলেন, “যারা মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করার সুযোগ পাননি তাদের জন্য আজ সামনে সুযোগ এসেছে।”

তিনি দশ কোটি ভোটারকে এই মুক্তিযুদ্ধের যোদ্ধা আখ্যায়িত করে বলেন, “এই যুদ্ধের অস্ত্র হবে ব্যালট। প্রতিটি কেন্দ্রে বিএনপিসহ ঐক্যফ্রন্টের নেতা-কর্মীরা অতন্দ্র প্রহরীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়ে দশ কোটি ভোটারে সঙ্গে থাকবে।”

দেশে সরকারের চলমান অপশাসনের চিত্র তোলে ধরে তারেক রহমান বলেন, “আজকে গণতন্ত্রের প্রতীক দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলা দিয়ে বন্দি করে রাখা হয়েছে। বিএনপির হাজার-হাজার, লক্ষ নেতা-কর্মীকে গায়েবি মামলা, মিথ্যা মামলা দিয়ে বন্দি করে রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে। যখনি সুযোগ পাচ্ছে, এ সরকার চেষ্টা করেছে, কিভাবে গুম-খুনের মাধ্যমে বিএনপির হাজারো নেতা-কর্মীদের গায়েব করে দিতে। কারণ এই একটি দল (আওয়ামী লীগ), যারা বাংলাদেশে ক্ষমতাকে ধরে রেখেছ অবৈধভাবে।সমগ্র বাংলাদেশের মানুষ পেছেন ফিরে তাকালেই দেখতে পাবেন যত বারই তারা দেশের ক্ষমতা নিয়ন্ত্রণের সুযোগ পেয়েছে প্রত্যেক বারের পরিস্থিতি একিরকম।”

তিনি বলেন, “ক্ষমতাসীন সরকার জানে কিভাবে সংবাদপত্রের টুঁটি চেপে ধরতে হবে, একিভাবে তারা চেষ্টা করেছে কিভাবে গণতন্ত্রের টুঁটি চেপে ধরতে হবে, তারা চেষ্টা করেছে কিভাবে জনগণের উপর অত্যাচার, নির্যাতনের স্টীম-রোলার চালাতে হবে।”

Share Button

৩ responses to “সেনাবাহিনীকে জনগণের পক্ষে ও প্রশাসনকে নির্ভয়ে কাজ করার আহবান করেছেন তারেক রহমান”

  1. Hi, I think your site might be having browser compatibility issues. When I look at your website in Safari, it looks fine but when opening in Internet Explorer, it has some overlapping. I just wanted to give you a quick heads up! Other then that, fantastic blog!

  2. wirtschaft says:

    I beloved as much as you will obtain carried out proper here. The cartoon is attractive, your authored material stylish. nevertheless, you command get bought an impatience over that you want be turning in the following. unwell no doubt come more before again as exactly the similar nearly a lot ceaselessly within case you protect this increase.

  3. Very interesting information!Perfect just what I was looking for!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বশেষ আপডেট

সম্পাদক ও প্রকাশক : এম. এম. শরীফুল আলম তুহিন
ইমেইল : expresstimes24@gmail.com
মোবাইল: ০১৭১২ ৭৪৭ ১৩৯ # ০১৯১৯ ৭৪৭ ১৩৯