,
সংবাদ শিরোনাম :

সুগন্ধি ও পুষ্টিগুনে ভরপুর সবজি ধনেপাতা

হেলালী খাতুন:: ধনেপাতা অতিপরিচিত একটি সবজি। ধনেপাতা যাকে ইংরেজিতে coriander এবং স্প্যানিশ ভাষায় cilantro বলে থাকে। বৈজ্ঞানিক নাম Coriandrum sativum.

ধনেপাতা এমন একটি উদ্ভিদ যা সুগন্ধি মশলা হিসেবে যেকোনো রান্নায় ব্যবহার করা যায়. ধনে পাতার ছোঁয়া লাগলে একেবারে সাধারণ খাবারও হয়ে ওঠে অসাধারণ। এটি স্বাস্থ্যের পক্ষেও ভালো। ধনেপাতা খুব ভালো ডায়েটারি ফাইবার।  এর পাতায় আছে ফলিক অ্যাসিড, রিবোফ্লাবিন, নিয়াসিন,ভাইটামিন-এ,  বিটা ক্যারোটিন, ভাইটামিন-সি সহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভাইটামিন, যা স্বাস্থ্যের জন্য অপরিহার্য।

ভিটামিন-সি একটি শক্তিশালী প্রাকৃতিক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট,100 গ্রাম ধনে পাতায় আছে দৈনিক অপরিহার্য ভিটামিন-সি এর ৩০% পুরণ  করার ক্ষমতা প্রতি ১০০গ্রাম ধনেপাতা আমাদের প্রতিদিনের ভিটামিন-এ এর চাহিদার ২২৫% সরবরাহ করতে সক্ষম। উদ্ভিজ্জ ভিটামিন কে এর এক অসাধারণ উৎস ধনেপাতা। এর প্রতি ১০০গ্রাম থেকে মাত্র ২৩ ক্যালরি কারবহাইড্রেট উৎপন্ন হয়,কিন্তু বাকি পূষ্টি উপাদান বিবেচনায় ধনেপাতা নিজেই নিজের তুলনা।

ধনেপাতা অনেকে বিভিন্ন সবজির মধ্যে দিয়ে খেয়ে থাকেন,অনেকে ধনেপাতার চাটনি করে খেয়ে থাকেন।আবার শীলপাটায় ধনে পাতা পিষিয়ে ভর্তা করলে তা অতি মুখরোচক হয়। যা ভাত বা রুটির সাথে অনেক মজাদার। তবে আমাদেরদেশে বেশির ভাগ মানুষ ধনেপাতা তরকারির মধ্যে ও সালাদে ব্যবহার করে

থাকে। অনেকেই এই ভেবে পছন্দ করে ধনেপাতা তরকারির মধ্যে দিলে ও সালাদে দিলে একটা সুগন্ধ নিয়ে আসে।কিন্তু অনেকে আবার ধনেপাতা পছন্দ করে না ও  খেতে চাই না। ধনেপাতায় রয়েছে পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, লোহা ও ম্যাগনেশিয়ামের মতো বেশ কয়েকটি উপকারী খনিজ। এছাড়া ভিটামিন এ এবং ভিটামিন কে-র জোগান দেয় এই ধনে পাতা। শুধু তাই নয়, এই ধনে পাতা উদ্ভিদ অ্যান্টিসেপ্টিক, অ্যান্টিফাংগাল এবং যে কোনও চুলকানি ও চামড়ার জ্বলনে গুরুত্বপূর্ণ ওষুধ। এছাড়াও ধনেপাতায় রয়েছে ভিটামিন সি। রয়েছে ভিটামিন-এ, ফলিক অ্যাসিড। এটি এমন এক ধরনের ভিটামিন,যা ত্বকের উপকারে যথেষ্ট প্রয়োজনীয়। একটি মানুষের প্রতিদিনের পুষ্টি জোগায় এই ভিটামিনগুলো। এর পাতায় রয়েছে ভিটামিন সি’তে ভরপুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট নামের উপাদান। কিছু সুগন্ধি তৈরির কাজেও ব্যবহার করা হয় এ ধনেপাতা ধনেপাতার গুণাগুণ সম্পর্কে আমাদের দেশের মানুষ খুব কমই জানে।মুখের সাদ বা সুগন্ধির কথা ভেবেই মূলত খেয়ে বা ব্যবহার করে থাকে তারা।

ধনেপাতার রয়েছে নানান ধরনের ঔষধি গুণ

যা রক্ত শোধন করে।আমাদের শরীরে নিয়মিত খাদ্যভ্যাসের কারনেতিলে তিলে জমা হতে থাকে বেশ কিছু ভারী ধাতু এবং বিষাক্ত দূষণকারী পদার্থ। এই বিষাক্ত দূষণকারী পদার্থ থেকে শরীরে বহু কঠিন রোগ যেমন ক্যান্সার, হৃদরোগ, মস্তিষ্কের বিভ্রাট,মানসিক রোগ, কিডনি ও ফুসফুসের অসুখ এবং হাড়ের দুর্বলতা তৈরি হতে পারে। ধনেপাতা রক্তপ্রবাহ থেকে এই সমস্ত ক্ষতিকর উপাদান দূর করে শরীরকে সুস্থ ও সতেজ রাখতে সাহায্য করে।চিকিৎসকরাও বলেন, প্রতিদিনের খাবারের মেন্যুতে ধনেপাতাকে স্থান দেয়া উচিত।

চলুন জেনে নেই ধনেপাতার উপকারিতা সম্পর্কে

★ধনেপাতার উপকারিতা:
কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে: আমাদের দেহে এলডিএল নামক এক ধরনের ক্ষতিকর কোলেস্টেরল থাকে, যা দেহের শিরা-উপশিরার দেয়ালে জমে হৃৎপিন্ডে রক্ত চলাচলে সমস্যা বাড়ায়। এর কারণে হার্ট অ্যাটাক হওয়ার আশঙ্কা থাকে।ধনেপাতা এই ক্ষতিকর কোলেস্টেরল কমিয়ে দেয় । আবার দেহের জন্য প্রয়োজনীয় বা উপকারি এক ধরনের কোলেস্টেরল, এইচডিএল-এর মাত্রা বাড়িয়ে দিয়ে শরীর সুস্থ রাখতেও সাহায্য করে এই ধনেপাতা।ধনেপাতায় থাকা আয়রন রক্ত তৈরি বা বৃদ্ধিতে সহায়তা করে থাকে। ধনেপাতায় রয়েছে প্রচুর ভিটামিন-কে। এই কারনে ধনেপাতা কোলেস্টেরলমুক্ত। ফলে দেহের চর্বির বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে। ধনেপাতা দেহের রক্ত পরিষ্কার করতেও সাহায্য করে।এছাড়া ধনাপাতা ইউরিন ইনফেকশন প্রতিরোধ করে থাকে।ধনে পাতায় আরো রয়েছে শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় ফাইবার, আয়রন, ফ্লেভোনয়েড, ম্যাগনেশিয়ামসহ বিভিন্ন পুষ্টি উপাদান যা স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারী। শীতকালীন ঠোঁট ও ত্বক ফাটা, ঠান্ডা লাগা, জ্বর জ্বর ভাব অনুভব হওয়ার ক্ষেত্রে বন্ধুর মতো কাজ করে এই পাতা।

★পাকস্থলির সমস্যায় ধনে পাতা:
ধনেপাতা শরীর ঠান্ডা রাখে এবং হজমে সাহায্য করে। আরো অনেক ক্ষেত্রে ধনে পাতা উপকার করে যেমন পেট ফাঁপা ও পাকস্থলির বিভিন্ন সমস্যা দূর করে হজমশক্তি বাড়াতেও সাহায্য করে। ধনেপাতা ক্ষুধা বৃদ্ধি করেও থাকে এবং বায়ুনাশক।৪/ ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ: ধনেপাতা রক্তে চিনির পরিমাণ কমিয়ে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করে।মেয়েদের মিন্সএর অতিরিক্ত ক্ষরণ নিয়ন্ত্রণে আনতেও ধনে পাতা অনেক গুরুত্বপূর্ণ।দেহের কাটা-ছেঁড়া অংশগুলো দ্রুত শুকানোর জন্য খুবই উপকারি এই উপাদান। দেহের চুলকানি-পাঁচড়ায় ধনেপাতার রস লাগালে তাড়াতাড়ি ভলো হয়ে যায়। অপারেশন বা আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত জায়গা দ্রুত নিরাময় করে এই ধনেপাতা।দাতের রক্ত পড়া,মস্তিষ্কের রোগ নিরাময়,হাড় মজবুত করতে,বাতের ব্যথার উপশম,ইত্যাদী ইত্যাদী রয়েছে আরো নানান গুন এই ধনে পাতায়।

★রূপচর্চায় ধনে পাতা:
রূপচর্চায়ও অনেক উপকারি এই ধনেপাতা। ত্বক ও চুলের ক্ষয়রোধ করে থাকে। ধনে পাতায় রয়েছে ভিটামিন এ , ভিটামিন সি, ফসফরাস ও ক্লোরিন। তাই প্রাকৃতিক ব্লিচ হিসেবে ধনে পাতা দারুন ভূমিকা। যাদের ঠোঁটে কালো দাগ আছে তারা রোজ রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে ধনে পাতার রসের সাথে দুধের সর মিশিয়ে নিয়মিত ঠোঁটে লাগিয়ে রাখলে,ঠোঁটের কালো দাগ দূর হবে আর ঠোঁট হবে কোমল ও সুন্দর।

ধনেপাতার যেমন রয়েছে উপকারী দিক তেমন রয়েছে এর অপকারী দিকও

★ধনেপাতার অপকারিতা:
আমরা জানি কোন কিছুর অতিরিক্ত খাওয়াটাও  দেহের জন্য ক্ষতিকর, সে যত উপকারি পুষ্টিসম্পন্ন  খাবারর হোক না কেন। ধনেপাতার গুনাগুন অনেক।কিন্তু অতিরিক্ত ধনেপাতা খেলে এটি লিভারের কার্যক্ষমতাকে খারাপভাবে প্রভাবিত করে থাকে। ধনেপাতাই থাকা এক ধরনের উদ্ভিজ তেল শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গকে আক্রান্ত করে ফেলে। এছাড়া ধনেপাতাই এক ধরনের শক্তিশালী অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে যেটা সাধারণত লিভারের বিভিন্ন সমস্যা দূর করে। কিন্তু অতিরিক্ত মাত্রায় ধনেপাতা খেলে লিভারের ক্ষতি হতে পারে। নিম্ন রক্তচাপ,অতিরিক্ত ধনেপাতা খাওয়ার ফলে দেহের হৃৎপিন্ড নষ্ট করে ফেলে, যার ফলে নিম্ন রক্তচাপ সৃষ্টি করে।বিশেষজ্ঞরা উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে এই ধনেপাতা খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। তাই এটি অতিরিক্ত খাওয়ার ফলে নিম্ন রক্তচাপের উদ্ভব ঘটতে পারে। এছাড়া এটি হালকা মাথাব্যথারও উদ্রেক করতে পারে। পেট খারাপ,ধনেপাতা পরিমাণ মত খেলে গ্যাস্ট্রোইনটেস্টিনাল বিষয়ক সমস্যা দূর করে থাকে।

কিন্তু বেশি পরিমাণে ধনেপাতা খেলেপাকস্থলীতে হজমক্রিয়ায় সমস্যা তৈরি করে থাকে। একটি গবেষণায় দেখা গেছে যে এক সপ্তাহে ২০০ এমএল ধনেপাতা আহারে গ্যাসের ব্যথা ওঠা, পেটে ব্যথা, পেট ফুলে ওঠা, বমি হওয়া এমনকি পাতলা পায়খানা হওয়ারও সম্ভাবনা দেখা যায়।

নিঃশ্বাসের সমস্যা,যদি কোন মানুষ শ্বাসকষ্টের রোগী হয়ে থাকে তাহলে ধনেপাতা খাওয়া থেকে বিরত থাকা উচিত। কেননা এটি শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা করে। যার ফলে ফুসফুসে অ্যাজমার সমস্যা হতে পারে। অতিরিক্ত এই ধনেপাতা খেলে মাঝে মাঝে ছোট ছোট নিশ্বাস নিতেও সমস্যা হতে পারে। বুকে ব্যথা,অতিরিক্ত ধনেপাতা খাওয়ার ফলে বুকে ব্যথার মতো জটিল সমস্যাও দেখা দিতে পারে। এটা শুধুমাত্র অস্বস্তিকর ব্যথাই সৃষ্টি করে না তা দীর্ঘস্থায়ীও হয়ে থাকে। এজন্য এই সমস্যা থেকে রেহাই পেতে দৈনন্দিন আহারে পরিমিত করে এই ধনেপাতা খেতে পারেন। ত্বকের সংবেদনশীলতা সবুজ ধনেপাতাতে মোটামুটিভাবে কিছু ঔষধি অ্যাসিডিক উপাদান থাকে যেটি ত্বককে সূর্যরশ্মি থেকে বাঁচিয়ে সংবেদনশীল করে থাকে। কিন্তু অতিরিক্ত ধনেপাতা খাওয়ার ফলে সূর্যের রশ্মি একেবারেই ত্বকের ভেতরে প্রবেশ করতে পারে না। তাই ত্বক ভিটামিন থেকে বঞ্চিত হয়। এছাড়া ধনেপাতা ত্বকের ক্যান্সার প্রবণতাও তৈরি করে থাকে। ভ্রূণের ক্ষতি,গর্ভকালীন সময়ে অতিরিক্ত ধনেপাতা খাওয়া ভ্রূণের বা বাচ্চার শরীরের জন্য বেশ ক্ষতিকারক। ধনেপাতাতে থাকা কিছু উপাদান মহিলাদের প্রজনন গ্রন্থির কার্যক্ষমতাকে নষ্ট করে ফেলে।যার ফলে মহিলাদের বাচ্চা ধারণ ক্ষমতা লোপ পায় এবং বাচ্চা ধারণ করলেও গর্ভকালীন ভ্রূণের মারাত্মক ক্ষতি করে থাকে। মুখে প্রদাহেরও সৃষ্টি করে। বিশেষ করে এর ফলে ঠোঁট,মাড়ি এবং গলা ব্যথা হয়ে থাকে।এর ফলে সারা মুখ লালও হয়ে যায়। অ্যালার্জীর সমস্যা,ধনেপাতার প্রোটিন উপাদানটি শরীরে আইজিই নামক অ্যান্টিবডি তৈরি করে যা শরীরের বিভিন্ন রাসায়নিক উপাদানকে সমানভাবে বহন করে থাকে। কিন্তু এর অতিরিক্ত মাত্রা উপাদানগুলোর ভারসাম্য নষ্ট করে ফেলে। ফলে অ্যালার্জী তৈরি হয়। এই অ্যালার্জীর ফলে দেহে চুলকানি,ফুলে যাওয়া, জ্বালাপোড়া করা, র্ওঠা এই ধরনের নানা সমস্যা হয়ে থাকে।

তাছাড়া বিভিন্ন প্রকার মুখোরোচ খাবার তৈরীতে ধনেপাতার জুড়ী মেলা ভার।ধনেপাতা অপছন্দ করেন এমন মসনুষে পরিমান খুব সামান্য।তাছাড়া ধনে পাতা চাষ করতে আলাদা করে কোনো জমি বা বিষেশ কিছুর প্রয়োজন হয়না বললেই চলে। এই ধনে পাতা, পেঁপেগাছ, কলার জমি এর মাঝেই চাষ করা সম্ভব।খরচ নেই বললেই চলে এবং বেশ লাভজন হওয়াই আগ্রহী হয়ে উঠছে উত্তর অঞ্চলের চাষীরা।

Share Button

৪০ responses to “সুগন্ধি ও পুষ্টিগুনে ভরপুর সবজি ধনেপাতা”

  1. You have brought up a very excellent details, thankyou for the post.

  2. Like!! Great article post.Really thank you! Really Cool.

  3. see page says:

    I got what you intend,saved to fav, very decent site.

  4. … [Trackback]

    […] Find More on to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  5. … [Trackback]

    […] Information on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  6. saranapoker says:

    … [Trackback]

    […] Find More Info here on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  7. … [Trackback]

    […] Read More on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  8. … [Trackback]

    […] There you will find 74071 more Information to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  9. … [Trackback]

    […] Find More on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  10. tips dokter says:

    … [Trackback]

    […] Information on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  11. jbo says:

    … [Trackback]

    […] Find More Information here to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  12. … [Trackback]

    […] Find More Info here on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  13. … [Trackback]

    […] Read More on on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  14. i99bet says:

    … [Trackback]

    […] Read More on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  15. satta king says:

    … [Trackback]

    […] Find More to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  16. … [Trackback]

    […] Find More to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  17. datasgp says:

    … [Trackback]

    […] Read More Information here to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  18. … [Trackback]

    […] Read More Information here to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  19. … [Trackback]

    […] Find More on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  20. Vivienne says:

    … [Trackback]

    […] Find More here on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  21. … [Trackback]

    […] Information on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  22. … [Trackback]

    […] Read More to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  23. … [Trackback]

    […] Find More to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  24. … [Trackback]

    […] Find More here on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  25. … [Trackback]

    […] Here you will find 56677 more Information to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  26. duratrans says:

    … [Trackback]

    […] Find More Information here on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  27. kompas qq says:

    … [Trackback]

    […] Info to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  28. wire qwest says:

    … [Trackback]

    […] Read More Information here to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  29. … [Trackback]

    […] There you can find 53945 more Information to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  30. cbd oil says:

    … [Trackback]

    […] Info on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  31. cbd oil says:

    … [Trackback]

    […] There you can find 71281 more Information on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  32. 카지노 says:

    … [Trackback]

    […] Information to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  33. … [Trackback]

    […] Find More Info here on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  34. … [Trackback]

    […] Read More Information here on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  35. … [Trackback]

    […] Information to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  36. Sofa says:

    … [Trackback]

    […] Information to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  37. … [Trackback]

    […] Information on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  38. … [Trackback]

    […] Here you will find 82767 additional Information to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  39. … [Trackback]

    […] Read More on that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

  40. … [Trackback]

    […] Here you can find 99565 additional Information to that Topic: expresstimes24.com/?p=9210 […]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বশেষ আপডেট

সম্পাদক ও প্রকাশক : এম. এম. শরীফুল আলম তুহিন
ইমেইল : expresstimes24@gmail.com
মোবাইল: ০১৭১২ ৭৪৭ ১৩৯ # ০১৯১৯ ৭৪৭ ১৩৯